বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা এসএমএস, স্ট্যাটাস, , কবিতা ও কিছু কথা

সকলকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।  ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস প্রতি বছরে একবার আসলোও বাঙালির জীবনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও আবারো চলে এলো বাংলাদেশের গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন ‘মহান বিজয় দিবস’।  হাটি হাটি পা পা করে আমাদের সোনার বাংলাদেশ ( ২০২0 সালে) ৫০ বছর পূর্ণ করেছে।  বিশ্ব মানচিত্রে নিজেদের উপস্থিতিকে মেলে ধরেছে খুবি সুন্দর ভাবে। 

প্রিয় পাঠক ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি তারিখ। ১৯৭১ সালের এইদিনে লাখো শহীদের বিনিময়ে বাংলাদেশ নতুন একটি রাষ্ট্র হিসেবে বিজয় ছিনিয়ে এনেছিল, বিজয়ের জন্য গড়েছিল এক ইতিহাস। স্বাধীনতা পেতে এত রক্তক্ষয়, এমন দৃষ্টান্ত ইতিহাসে কোন জাতির নেই। 

১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস কি?

পাকিস্তানি ( পশিম পাকিস্তানি ) হানাদার বাহিনীর সাথে নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ ও লাখো শহীদ ও মা-বোনেদের আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে এই মহা বিজয় অর্জন করি আমরা। 

সেই সাথে বিশ্বের ইতিহাসে বাংলাদেশ নামের একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়।  বিশ্ব জানতে পারে যে নিজেদের স্বাধীনতার জন্য কতটা উৎসুক ছিল বাঙালি জাতি।  

তাই এই দিনটি প্রতিবছর (১৬ ডিসেম্বর) যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে জাতীয়ভাবে সারাদেশে উদযাপন করা হয়। 

তবে এই প্রথম করোনা মহামারীর কারণে ২০২০ সালে সীমিত পরিসরে উদযাপিত হলেও ২০২১ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ৫০ বছর উপলক্ষে বিশেষ আয়োজন এর মধ্য দিয়ে হতে যাচ্ছে মহান বিজয় দিবস ২০২১।

বাঙালি জাতির জন্য এই বিশেষ দিনটিকে বিশেষভাবে স্মরণ করা এবং সারাবছর দিনটি সম্পর্কে এবং দেশের ও দেশাত্মবোধ সম্পর্কে নিজেদের উৎসাহিত করতে সর্বদা স্বাধীনতার জন্য আত্মত্যাগ কারীদের স্মরণ করা জরুরী।  

প্রতিটি বিশেষ দিবসেই এখন লোকেরা একে অন্যের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করে থাকে। ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের দিনটিও আমাদের জন্য বিশেষ দিন। 

তাই আমাদের উচিৎ ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস সম্পর্কে আমাদের নতুন প্রহন্মকে জানানো। অন্যান্য স্ট্যাটাস এর মত বিজয় দিবসের স্ট্যাটাস শেয়ার করে সকলকে জানানো। 

চলুন বাঙালি জাতির জন্য গৌরবময় এই আনন্দের দিনটি আমরা সোশ্যাল মিডিয়াতেও সমানভাবে উদযাপন করি। সঠিকভাবে চর্চার মাধ্যমে আমাদের নতুন প্রজন্মের কাছে মানুষের সঠিক কথাগুলো আমরা পৌঁছাতে পারি তবেই আমাদের স্বাধীনতাকামীদের আত্মত্যাগের ঋণ কিছুটা হলেও সোধ হবে। 

এজন্য আমাদের দরকার বিজয় দিবসের স্ট্যাটাস, এসএমএস, উক্তি, কবিতা ও কিছু গুরুত্বপূর্ণ মুক্তিকামী লোকেদের কথা। আজকের এই পোস্টে আপনাদের জন্য স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষে থাকছে সেসবই উক্তি কথা বা স্ট্যাটাস।

বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা এসএমএস | Bijoy Dibosh Status kobita

বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা এসএমএস
বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা

তোমার মাঝেই স্বপ্নের শুরু,
তোমার মাঝেই শেষ।
তবুও ভালোলাগা-ভালোবাসাময় তুমি,
আমার বাংলাদেশ।


লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে, পেয়েছি যে বিজয় নিশান।
প্রয়োজনে আবার দেবো রক্ত ঠেলে,
বজায় রাখতে বিজয়ের মান।
মোদের দেহে থাকতে রক্ত, বৃথা যাবে না শহীদদের দান।
মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।


১৬ই ডিসেম্বর তুমি বাঙালির অহংকার।
তুমি কোটি জনতার বিজয় নিশান,
স্বাধীন বাংলার স্বাক্ষর।


প্রথম বাংলাদেশ আমার, শেষ বাংলাদেশ।
জীবন বাংলাদেশ আমার, মরণ বাংলাদেশ…।”
সকলকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।


আসুন আজ আমরা সবাই প্রতিজ্ঞা করি যে,
আমরা সব অন্যায় এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করব,
সবাইকে আমাদের দেশের মহত্ত্ব বোঝাব,
সঠিক অর্থে আমরা একজন বাংলাদেশী হয়ে উঠব।
শুভ জন্মদিন বাংলাদেশ ” শুভ বিজয় দিবস”


১৬ই ডিসেম্বর,
তুমি মহা বিজয়ের মহা উল্লাস।
তুমি বিধবা মায়ের বন্দী শ্বাসের শান্তির নিঃশ্বাস।
স্বাধীনতা পেয়ে ভুলে যাইনাজেন স্বাধীনতার জন্য আত্মত্যাগকারীদের।
বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা সবাইকে।


বিজয় আমাকে পথ দেখিয়েছে, দিয়েছে বাচাঁর আশ্বাস।
আমি বিজয়ের গান গাই, আমি স্বাধীনতা কে চাই।
আমি বিজয়ের পতাকা ধরে, সারাটি পথ পাড়ি দিতে চাই।
মন খুলে সবাইকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা যানাই।


সব ক’টা জানালা খুলে দাও না!
আমি গাইবো, গাইবো বিজয়েরই গান।
ওরা আসবে চুপি চুপি, যারা এই দেশটাকে ভালোবেসে দিয়ে গেছে প্রাণ…
চির ওমর হও বাংলার মহা যোদ্ধারা।
আমাদের মাঝেই বেঁচে থাকবে চিরদিন তোমরা…।।
তুমাদের যানাই বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।


বিজয় মানে একটা মানচিত্র,
বিজয় মানে একটা লাল সবুজের পতাকা,
⇒ বিজয় মানে একটা গর্বিত জাতি, বিজয় মানে অস্তিত্বে বাংলাদেশ।
বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তিতে এই গর্বিত জাতি গড়ার সকল কারিগরকে মন থেকে জানাই শুভেচ্ছা।


১টি যুদ্ধ, ৯টি মাস, লক্ষ শহীদ, ৭জন বীরশ্রেষ্ঠ, ১টি দেশ।
সকলকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।


লাল এর মাঝে ভালবাসা।
সাদা এর মাঝে বন্ধুত্ব।
নীল এর মাঝে কষ্ট।
কালো এর মাঝে অন্ধকার।
আর সবুজের মাঝে আমার বাংলাদেশ।
আর ১৬ ডিসেম্বর আমাদের বিজয় দিবস।

বিজয় দিবস নিয়ে কিছু কথা

বাংলার স্বাধীনতা অর্জনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত প্রতি মিনিটে মিনিটে সেকেন্ডে সেকেন্ডে আমাদের দেশের মুক্তিকামী যোদ্ধারা দেশপ্রেমের উদাহরণ রেখে গেছেন।

মুক্তিকামী সৈনিক এবং মুক্তিযোদ্ধাদের ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যোদ্ধের বিনিময়ে আমাদের স্বাধীনতা অর্জিত।  স্বাধীনতা এমনি এমনি আসিনি এর পিছনে অনেক ইতিহাস রয়েছে।

বাংলার স্বাধীনতার ইতিহাস সম্পর্কে একজন বাঙালি হিসেবে ভালোভাবে জানা প্রয়োজন।  বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস এসএমএস দিয়ে কখনই আপনাকে বুঝানো সম্ভব নয় বাংলার স্বাধীনতা সম্পর্কে।

এটি শুধুমাত্র অল্প কিছু বর্ণ মাত্র, দেশ ও দেশের স্বাধীনতা সম্পর্কে জানতে।  আমরা চেষ্টা করছি মহান স্বাধীনতা দিবসের উপলক্ষ করে সমগ্র জাতিকে ৭১ এর মুক্তিকামীদের ছিন্তা ধারায় জাগ্রত করতে আদর্শ দেশপ্রেমিক হিসাবে। 

সম্প্রতি বাংলাদেশ পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচ সিরিজে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে,  তাতে অনেকেই দেখেছেন প্রেম নিয়ে অনেকের অনেক ধরনের মতভেদ এটা একান্তই কাম্য নয়।

বিশেষ করে যখন পাকিস্তানীদের সমর্থনের কথা আশে। বাংলালি জাতি হিসাবে আমি জীবনের শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করার পূর্ব পর্যন্ত বাংলাদেশকে ভালোবাশি।

খেলা তো খেলায়ই। খেলার ছলে দেশপ্রেমকে কে ভুলে গেলে চলবেনা।  তাই আমাদের আরও বেশি মহান ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস সম্পর্কে নিজেদের জানা উচিৎ।

দেশপ্রেম সম্পর্কে অনেক উদাহরণ রয়েছে। আমাদের মহান যোদ্ধারা দেশের জন্য ছিলেন মহান দেশপ্রেমিক। তাদের মত দেশপ্রেমিক হতে আমার পারবোনা ।

শুধু দিতে পারি দেশ ও সরকারের দোষ। নিজেরা ঘুমিয়ে থাকি, আর সমাইকে জেগে থাকতে বলি এই হল আমাদের বরতমান দেশপ্রেমের অবস্থা।

এই অবস্থার পরিবর্তন ঘটানো দরকার। আসুন দেশকে মনেপ্রানে ভালোবাসি।

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস – Mohan Bijoy Dibosher Shuveccha SMS

বিজয় মানে একটা মানচিত্র,
বিজয় মানে লাল সবুজের পতাকা,
⇒ বিজয় মানে একটা গর্বিত জাতি,
বিজয় মানে অস্তিত্বে বাংলাদেশ।
বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তিতে এই গর্বিত জাতি গড়ার সকল কারিগরকে মন থেকে জানাই শুভেচ্ছা।


প্রশ্নবিদ্ধ স্বাধীনতাকে উত্তরে মেলাবার আজই তো সময়,
লক্ষ কন্ঠে সোনার বাংলায় খুঁজে পাই প্রাণের আস্বাদ।
সবাইকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।


আপনার সম্মান তখন বাড়বে।
যখন বিদেশে গিয়ে আপনি নিজের দেশের সম্মান বাড়াতে পারবে।
আর গর্বিতভাবে বলতে পারবেন, আমি বাংলাদেশী।
বিজয় দিবস শুভেচ্ছা সবাইকে।


আপনার বা আপনার পরিবারের অসম্মানে আপনার যতটা কষ্ট হবে।
তার চেয়ে অনেক বেশি কষ্ট এবং রাগ হবে আপনার দেশের অসম্মান হলে।
তাই সর্বদা দেশকে সম্মান করুন এবং দেশের সম্মান রক্ষায় ব্রতী থাকুন।
সবাইকে বিজয় দিবস উপলক্ষে লাল সবুজের শুভেচ্ছা।


আসুন আজ আমরা সবাই প্রতিজ্ঞা করি যে,
আমরা সব অন্যায় এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করব,
সবাইকে আমাদের দেশের মহত্ত্ব বোঝাব,
সঠিক অর্থে আমরা একজন বাংলাদেশী হয়ে উঠব।
শুভ জন্মদিন বাংলাদেশ।


মহান বিজয় দিবস ২০২১ সফল হোক সেই সকল মহাবীরের জন্য যারা দেশকে এনে দিয়েছে স্বাধীনতা।
আমারা কি সাজিয়েছি সোনার বাংলালদেশ বীর মুক্তিযুদ্ধাদের ছিন্তা ও ছেতনা অনুসারে।
এসো দেশের ৫০তম বিজয় দিবস মহাক্ষণে দেশকে ভালো বাসতে সিখি।


আজ ১৬ই ডিসেম্বর। মহান বিজয় দিবস।
১৯৭১ সালে যাদের মহান আত্নত্যাগের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র, তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করছি।
সবাইকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।


১৬ই ডিসেম্বর তুমি বাঙালির অহংকার।
তুমি কোটি জনতার বিজয় নিশান, স্বাধীন বাংলার স্বাক্ষর।


১৬ই ডিসেম্বর, তুমি মহা বিজয়ের মহা উল্লাস।
তুমি বিধবা মায়ের বন্দী শ্বাসের শান্তির নিঃশ্বাস।


প্রথম বাংলাদেশ আমার, শেষ বাংলাদেশ।
জীবন বাংলাদেশ আমার, মরণ বাংলাদেশ।
সকলকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।

বিজয় দিবসের কবিতা

এখন আপনাদের ‘বিজয় ডিসেম্বর’ নিয়ে লেখা সিফাত আহমেদ সাহেবের একটি কবিতা দেখুন।

লাল সবুজের স্মৃতি ঘেরা নিশান আমার উড়ে।
কিনেছিলাম রক্ত দিয়ে বিজয় ডিসেম্বরে।
মাগো তোমার চোখের জলে,
জয় বাংলা ধ্বনি তুলে,
হাজার ছেলে প্রাণ দিল ঐ নতুন আশার ভোরে।
রক্ত দিয়ে কেনা এই বিজয় ডিসেম্বরে।

মাগো তুমি হায়েনা ভয়ে কাঁদছ দেখে তাই।
তোমার ছেলে ঘর ছেড়েছে তোমায় দিতে ঠাই
বিশ্বমাঝে উচ্চাসনে,
পাক বাহিনীর নির্যাতনে,
আর হবেনা শোষণ, এবার তোমার আপন ঘরে।
রক্ত দিয়ে কেনা এই বিজয় ডিসেম্বরে।

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস ও স্ট্যাটাস সম্পর্কে কিছু কথা

লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে, পেয়েছি যে বিজয় নিশান। প্রয়োজনে আবার রক্ত দেব, একবার নয় সত বার দেব।

স্বাধীনতা ও বিজয় দিবসের মহা ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে হবে আমাদের। একতাই শক্তি একতাই বল। আসুন দেশের জন্য মিলে মিশে কাজ করি।

এই দেশ আমাদের, নিজের দেশ ও মাতৃভূমিকে যে ভালো নাবাশে এমন লোক খুঁজে পাওয়া দুস্কর। তবে আমাদের দেশে কিছু অস্বাদু ও নিজ স্বার্থ উদ্ধারের জন্য স্বাধীনতার বিরোধিতা করে।

যোজ্য দেশ হিসাবে আমারা স্বাধীনতা পেয়েছে। বাঙ্গালীরাই লড়েছে, রক্ত দিয়েছে দেশের জন্য। গুঁটি কয়েক জনগোষ্ঠীর জন্য আমাদের স্বাধীনতা বিফলে জেতে পারেনা।

তবে তাদের মোকাবেলা করাই আমাদের নতুন প্রজন্মের কাজ, স্বাধীনতার অপশক্তিকে রুখতে হবে, নিশ্চিহ্ন করতে হবে এই বাংলার মাতি থেকে তাদের নাম ও নিশান।

আশা করি আপনারা সকলে বুজতে পেরেছেন আমি ঠিক দেশ ও মাতৃভূমি সম্পর্কে কি বলতে চেয়েছি।

আসুন সবাই মিলে সপথ করি দেশ ও দেশের দেশ ও দেশের শত্রুদের পরাজিত করে, বজায় রাখতে বিজয়ের মান। মোদের দেহে থাকতে রক্ত, বৃথা যাবে না শহীদদের দান।
আবারো সবাইকে আবারো মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।


বিজয় তুমি শীতের সকালে শিশির ভেজা ঘাস,
বিজয় তুমি বিশ্বখ্যাত বাংলার সোনালী আঁশ।
১৬ ডিসেম্বর ২০২১
মহান বিজয় দিবস।


বিজয় আমাকে পথ দেখিয়েছে, দিয়েছে বাচাঁর আশ্বাস।
আমি বিজয়ের গান গাই, আমি স্বাধীনতা কে চাই।
আমি বিজয়ের পতাকা ধরে, সারাটি পথ পাড়ি দিতে চাই।
মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।


মেঘে মেঘে, কিছু ভেজা পাখির দল
মেঘ হারিয়ে, নীল ছাড়িয়ে, খুঁজে ফেরে বাংলাদেশ
সকলকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা

মহান বিজয় দিবস ছবি – বাংলাদেশের বিজয় দিবস ছবি

মহান বিজয় দিবস ছবি
মহান বিজয় দিবস ছবি
বিজয় দিবসের ছবি আঁকা
বিজয় দিবস 2022

উপসংহার

আশা করি বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস এসএমএস সম্পর্কে আপনি জানতে পেরেছেন।  বিজয় দিবসের স্ট্যাটাস সেন্ড করেই আপনার কাজ শেষ নয়।

আপনার বন্ধু, পরিবার, বন্ধু ও আসেপাশের লোকেদের মধ্যে দেশপ্রেমকে জাগ্রত করুন। তবেই স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষে আমাদের মহান বিজয় দিবস পালন আরও সুন্দর হবে।

আরও কিছু জানার থাকলে জয়েন করুন আমাদের Facebook Page, ধন্যবাদ।

1 thought on “বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা এসএমএস, স্ট্যাটাস, , কবিতা ও কিছু কথা”

Comments are closed.