আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ চালু হলো বাংলাদেশ | গ্রাহক কি পেলেন

আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ
আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ

বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন অথরিটি (BTRC) আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ চালু করেছে বাংলাদেশে। বাংলাদেশের প্রতিটি টেলিকম অপারেটরকে গ্রাহকদের জন্য আনলিমিটেড ইন্টারনেট ডাটা চালু করার কথা জানিয়ে দিয়েছে। 

সর্ব প্রথম টেলিটক গ্রাহকদের জন্য আনলিমিটেড মেয়াদের ডাটা প্যাকেজ চালু করেছে। টেলিটক সিমে দুটি মেয়াদহীন ডাটা প্যাকেজ রয়েছে, যা গত মার্চ মাস থেকেই চালু হয়েছে। 

বর্তমানে অন্য সকল টেলিকম অপারেটরগুলোও মেয়াদহীন ডাটা প্যাকেজ চালু করেছে। শুরুতেই আপনাদের জানিয়ে রাখি একমাত্র টেলিটকের পক্ষ থেকে প্রদান করা মেয়াদহীন ডাটা প্যাকেজের মেয়াদ হবে সত্যিকার অর্থে আনলিমিটেড মেয়াদের।

আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ কি? 

আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ
আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ

বাংলাদেশে চলমান অন্য টেলিকম অপারেটরগুলো, অর্থাৎ গ্রামীণফোন, রবি এবং বাংলালিংক, এয়ারটেল তাদের আনলিমিটেড মেয়াদ বলতে বোঝাচ্ছে ১ বছর।

অর্থাৎ তাদের নির্দিষ্ট কিছু আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজ মেয়াদ হবে ১ বছর বা ৩৬৫ দিন। সেগুলোকেই তারা মেয়াদহীন বলছে। 

কারণ হিসেবে টেলিকম অপারেটর গুলি যা বলছে তা হচ্ছে, সাধতেরনেটেলিকম কম্পানিগুলি থেকে প্রদান করা ইন্টারনেট প্যাকের মেয়াদ হয়ে থাকে কয়েক দিন থেকে কয়েক সপ্তাহ, ১৫ দিন বা এক মাস।

যেহেতু বর্তমানে প্রদানকরা এই নতুন ইন্টারনেট প্যাকগুলো পূর্বে প্রদান করা অফারের মেয়াদের চেয়ে অনেক বেশি মেয়াদ দিচ্ছে, তাই এটাকে তারা বলছে আনলিমিটেড মেয়াদ।

বর্তমান প্রেক্ষাপট ও বাস্তবতা চিন্তা করলে এক বছর মেয়াদ গ্রাহকদের জন্য যথেষ্ট ভালো একটি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন অথরিটি। 

1 বছর মেয়াদী কোন ইন্টারনেট ডাটা প্যাক ক্রয় করলে আপনাকে মেয়াদ নিয়ে কখনোই ভাবতে হবে না।

এই ১ বছর সময়কালকে অনেক গ্রাহক “আনলিমিটেড” বলতে রাজী না হলেও একজন ব্যবহারকারীর দৃষ্টিকোণ থেকে এটাকে মেয়াদহীন বলতে অসুবিধা নেই, কারণ ১ বছর বা ৩৬৫ দিন মেয়াদ অনেক সময়। 

একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ১ বছরের জন্য একটি নেট প্যাকেজ কিনে সেটা ১ বছর ধরে ব্যবহার করলে অবশ্যই সে ক্রয় করা ইন্টারনেট ব্যালেন্স পুরোটাই ব্যবহার করে শেষ করে ফেলতে পারবেন।

যাইহোক, আমরা এটা নিয়ে বিতর্কে যাচ্ছিনা, তবে ইন্টারনেট প্যাক মূল্য এই ক্ষেত্রে গ্রাহকদের জন্য অসুবিধার কারণ হতে পারে। 

তাহলে এতক্ষনে আপনি জানতে পেরেছেন আনলিমিটেড বা মেয়াদহীন  প্যাকেজ সম্পর্কে। এই বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করতে পারেন তবে গঠনমূলক বক্তব্য আপনি আমাদের আপনার কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন। 

কিভাবে আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজ ক্রয় করবেন

আপনারা আমাদের সাথে থাকুন আমরা আপনাদের সকল অপারেটরের আনলিমিটেড internet প্যাকেজ সমূহ রিসার্চ যে পরিমাণ এবং এক্টিভেশন কোড সহ বিস্তারিত পোস্ট নিয়ে আসছি। 

আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ অফার রয়েছে।  গ্রামীণফোন সহ অন্যান্য অপারেটর গুলো একাধিক নতুন আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজ নিয়ে এসেছে। 

সম্পূর্ণ তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে আমরা আপনাদের জন্য সারণী আকারে প্রকাশ করব। 

সর্বশেষ আমরা গ্রামীণফোনের কিছু আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাক সম্পর্কে জানতে পেরেছি যে অফারগুলো তে দামের তারতম্য রয়েছে। 

আরও পড়ুনঃ

কিভাবে আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ ক্রয় করবেন?

টেলিটকসহ বাংলাদেশের সকল টেলিকম অপারেটর সমূহ গ্রাহকদের জন্য আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ সরাসরি রিচার্জের মাধ্যমে ক্রয় করার সুবিধা দিচ্ছে। তবে এক্টিভেশন কোড সহ বিস্তারিত পোস্ট আসছে শিগ্রই।

উপসংহার,

আশা করি আপনারা আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ সম্পর্কে জানতে আমাদের সাথে থাকবেন। 

এছাড়াও রেগুলার ইন্টারনেট ডাটা প্যাকেজ গুলো আমাদের এখানে রয়েছে আপনি চাইলে পোস্টগুলো পড়তে দেখতে পারেন।