বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম | নিজেই বন্ধ করতে পারবেন সিম

বিভিন্ন কারণে আমাদের ব্যবহার করা সিম বন্ধ করার প্রয়োজন পড়ে। বাংলাদেশের জনপ্রিয় টেলিকম অপারেটর বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম সম্পর্কে আজকে আপনাদের জানাবো। কেননা আমাদের মধ্যে এমন অনেক বাংলালিংক গ্রাহক রয়েছেন যারা জানেননা কিভাবে একটি বাংলালিংক সিম স্থায়ী এবং অস্থায়ী ভাবে বন্ধ করতে হয়।

 সেইসাথে আপনি জানতে পারবেন সিম বন্ধ করার সময় কোন কোন পদক্ষেপ গুলো আপনার অনুসরণ করা দরকার এবং কোন পদক্ষেপগুলো অনুসরণ করলে আপনি অফিশিয়ালি ভিজিট না করেও ঘরে বসে আপনার বাংলালিংক সিম টি বন্ধ করতে পারবেন। 

বর্তমানে গ্রাহক দুইটি পদ্ধতিতে বাংলালিংক সিম বন্ধ  করতে পারেন। বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম দুটি হচ্ছেঃ 

১)  সাময়িকভাবে বন্ধ করা 

২) স্থায়ীভাবে বন্ধ করা 

বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম 

সাময়িকভাবে এবং স্থায়ীভাবে যে পদ্ধতিতেই আপনি সিম টি বন্ধ করতে চান না কেন আপনাকে প্রথম যে কাজটি করতে হবে সেটি হচ্ছে হেল্পলাইনে কল করে আপনার সমস্যা সম্পর্কে জানিয়ে সাময়িকভাবে সিমটিকে ব্লক করতে হবে। 

তবে প্রাথমিক পদক্ষেপ অনুসরণ পরবর্তী সাময়িকভাবে এবং সম্পূর্ণরূপে স্থায়ীভাবে সিমটি বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ আপনাকে অনুসরণ করতে হবে।

 বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব আজকে এই পোস্টে।

এখানে উল্লেখিত পদ্ধতিও নিয়মগুলো অনুসরণ করে আপনি সহজেই আপনার বাংলালিংক সিম টি বন্ধ করতে পারবেন। 

বাংলালিংক সিম সাময়িকভাবে বন্ধ করতে কল করুন ১২১ নম্বরে
বাংলালিংক সিম স্থায়ীভাবে বন্ধ করতে কাস্টমার কেয়ার ভিজিট

সাময়িক ভাবে বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম

যদি কোন কারণে আপনার সিমটি খুঁজে পাচ্ছেন না বা আপনার সিমটি হারিয়ে গিয়ে থাকে তবে অবশ্যই আপনার উচিত সিম থেকে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া। 

বাংলালিংক সিম বন্ধ করার জন্য আপনি অন্য যে কোন বাংলালিংক নম্বর থেকে বাংলালিংক হেল্পলাইন নাম্বার ১২১ এ কল করুন। 

প্রথমত আপনি আপনার সমস্যা সম্পর্কে কাস্টমার কেয়ার ম্যানেজারের সাথে আলোচনা করুন। 

তারপর কাস্টমার কেয়ার ম্যানেজার আপনার সমস্যা অনুসারে আপনাকে পরামর্শ দিবে এবং আপনার সিমের মালিকানা ভেরিফাই সম্পর্কিত প্রশ্ন আপনার কাছে করা হতে পারে। 

  • এই বিষয়গুলোর মধ্যে রয়েছে সিমটি যে নামে ওই ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার। 
  • সিম নাম্বার সিমের বর্তমান ব্যালেন্স
  • সর্বশেষ রিচার্জ এর পরিমান
  • অনেক সময়  অধিকতর লক্ষ্যে সবচেয়ে বেশি কল করা হয়েছে এমন একটি নম্বর সম্পর্কেও জানতে চাওয়া হতে পারে। 

আপনি যদি সিমটিকে সাময়িকভাবে বন্ধ করতে চান তবে কতৃপক্ষকে তথ্য যাচাই পরবর্তী বলুন যে সাময়িকভাবে আমার সিমটি বন্ধ করার অনুরোধ করুন। 

কেননা আপনি সিমটি হারিয়ে গিয়ে থাকলে বা কোথাও রেখে ভুলে গেলে তা পুনরায় আপনার হাতে আসার সম্ভাবনা থাকলে অবশ্যই আপনার এই কাজটি করা উচিত। 

মনে রাখবেন এই পদ্ধতিতে সিমটি সাময়িকভাবে ব্লক করলে আপনি পরবর্তিতে চিমটি হাতে পেলে একই পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনার ভেরিফিকেশন পরবর্তী সিম টি সচল করতে পারবেন হেল্পলাইনে কল করার মাধ্যমে। 

বাংলালিংক সিম স্থায়ী ভাবে বন্ধ করার নিয়ম

বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম
বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম

বাংলাদেশের জনপ্রিয় টেলিকম অপারেটর বাংলালিংক সিম গুলো স্থায়ীভাবে বন্ধ করার জনিত সমস্যা অনেক কম। 

বর্তমানে একজন  ব্যক্তি তার ভোটার আইডি কার্ড ব্যবহার করে সর্বোচ্চ 15 টি সিম ব্যাবহার করতে পারবেন।

এই প্রেক্ষাপটে এখন অনেকেই তাদের নামের পূর্বে রেজিস্টার করা সিম গুলোকে বন্ধ করতে চান। 

তবে যদি কোন কারণে  বাংলালিংক সিম স্থায়ীভাবে বন্ধ করার প্রয়োজন পড়ে তবে অবশ্যই আপনাকে কিছু পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হবে নিম্নে এই পদক্ষেপ গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। 

সাময়িকভাবে বন্ধ করার জন্য যেখানে আপনি হেল্প লাইনে কল করার মাধ্যমে করতে পারছেন।

তবে স্থায়ীভাবে বন্ধ করতে আপনাকে বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে ভিজিট করতে হবে।

আপনার নামে থাকা বাংলালিংক সিম সাময়িকভাবে বন্ধ করার মত হেল্পলাইনে ফোন করে স্থায়ীভাবে বন্ধ করতে পারবেন না। 

এর জন্য আপনাকে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রমাণ সহ আপনার নিকটস্থ বাংলালিংক কাস্টমার সার্ভিস সেন্টারে গিয়ে আপনার নাম থেকে চিমটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করার বিষয়টি জানাতে হবে। 

স্থায়ীভাবে বাংলালিংক সিম বন্ধ করতে আপনাকে কি কি সাথে নিয়ে যেতে হবেঃ- 

যে এনআইডি (NID) কার্ড দিয়ে সিম রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছিল ঐ অরজিনাল এনআইডি (NID) কার্ডসহ ঐ ব্যক্তিকে উপস্থিত থাকতে হবে। 

তবে বাংলালিংক সিমটি যদি হয় আপনার নিজের নামে তাহলে তো কোনো সমস্যাই নেই, আপনি অরিজিনাল NID নিয়ে গেলে হবে। 

মনে রাখবেন বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশন নিয়ম অনুযায়ী আপনার বাংলালিংক সিমের মালিক যার এনআইডি কার্ড দিয়ে সিমটি রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে।

এছাড়াও যার নামে সিমটি রেজিস্ট্রেশন করা রয়েছে, তার ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্রয়োজন হবে। 

তাই অবশ্যই উপরোক্ত বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখতে হবে, যখন বাংলালিংক সিম বন্ধ করার জন্য কাস্টমার সার্ভিস সেন্টারে ভিজিট করবেন। 

বাংলালিংক বাংলালিংক সিম বন্ধ করার কিছু শর্ত

একদিনে একজন বাংলালিংক গ্রাহক সর্বোচ্চ একটি বাংলালিংক সিম স্থায়ীভাবে বন্ধ করতে পারবেন।

যদি কোনো কারণে কোনো গ্রাহকের একাধিক বাংলালিংক সিম বন্ধ করার প্রয়োজন পড়ে তবে তাকে 24 ঘন্টা পরবর্তী পুনরায় কাস্টমার সার্ভিস ভিজিট করার মাধ্যমে তার বাংলালিংক সিম স্থায়ীভাবে বন্ধ করার আবেদন করতে হবে। 

প্রতিবার বাংলালিংক সিম বন্ধ করার জন্য আপনাকে আপনার অরজিনাল ভোটার আইডি কার্ড সহ বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ার অফিসে ভিজিট করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ

বাংলালিংক নাম্বার চেক করার কোড

বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ার

কিভাবে বাংলালিংক সিম বন্ধ করবেন?

বাংলালিংক সিম সাময়িকভাবে বন্ধ করতে কল করুন ১২১ নম্বরে। আপনার দেয়া তথ্য ঠিক থাকে সহজেও আপনি আপনার সিমটি বন্ধ করতে পারবেন।

বাংলালিংক সিম বন্ধ করার উপায় কি?

স্থায়ীভাবে বাংলালিংক সিম বন্ধ করার জন্য আপনাকে আসল ভোটার আইডি (NID CARD) কার্ড সহ বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ার ভিজিট করতে হবে।

উপসংহার

আশা করি আপনি বাংলালিংক সিম বন্ধ করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।  

আমরা এই ওয়েবসাইটে রেগুলার বাংলালিংক ইন্টারনেট অফার সম্পর্কে মিনিট অফার সম্পর্কে ও কল রেট সম্পর্কে বাংলালিংক অফিসিয়াল ব্যানার ও পোস্টার গুলো সংগ্রহ করার মাধ্যমে আপনাদের জানিয়ে থাকি। 

সেইসাথে চেষ্টা করি আপনি যদি স্বল্প দামে সঠিক বাংলালিংক অফার টি আপনার জন্য পছন্দ করতে পারেন। 

এই ওয়েবসাইটের রেগুলার আপডেট পেতে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।